• সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
নোটিশ :
* ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেশবাসীকে বীরযোদ্ধা অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে জানাই প্রাণ ঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা * বিভিন্ন বিভাগ, জেলা ও উপজেলাতে অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী  আবশ্যক। আগ্রহীদের নিম্নে ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে।

হোসেনপুরে ঈদগাহ মাঠে বাড়ি নির্মাণ

বীরযোদ্ধা / ৬৪
প্রকাশিত : ১২:৩২ পিএম, (রবিবার) ২৫ জুলাই ২০২১

হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি :

হোসেনপুরে ঈদগাহ মাঠ দখল করে স্থানীয় এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে বাড়ি নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। তাই ওই মাঠ ফিরে পেতে কমিটির সভাপতি মোঃ এরশাদুল হক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত আবেদন করে জরুরি প্রতিকার দাবি করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার টান জিনারী গ্রামের মৃত আমির উদ্দিনের চার ছেলে জোরপূর্বক ভাবে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার করে আসা ওই ঈদগাহ মাঠ হঠাৎ দখল করে। সম্প্রতি সেখানে বাড়ি নির্মাণ করায় এলাকাবাসীদের মাঝে চরম ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। এদিকে ঈদগাহ মাঠ পৈত্রিক সম্পতি বলে দাবি করলেও আদালত তা খারিজ করে দেয়।

সরেজমিনে কথা হয় স্থানীয় সিরাজুল হক, মো: রুকন মিয়া, হৃদয় মিয়াসহ অন্তত ২০/২৫ জনের সাথে। তারা বলেন, আমরা সবাই মিলে গত কয়েক বছর আগে ওই মাঠে নামাজ আদায় করতাম। কিন্তু এ বছর হঠাৎ দেখলাম মাঠের জায়গায় ঘর তৈরি করে ফেলা হয়েছে। যা দেখে আমরা সবাই অবাক হয়ে গেলাম।

স্থানীয় জিনারী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মুনসুর আহম্মেদ জানান, টান জিনারী মৌজার ১নং ওয়ার্ডের ৪৩৯ নং দাগের নদীর পাড়ে ১০ শতক জায়গায় দেড়শ বছর আগে ঈদগাহ মাঠের নামে সিএস ও এসএ রয়েছে। যেখানে প্রতি বছর আড়াইশ থেকে তিনশ মুসল্লী দুই ঈদের নামাজ আদায় করে আসছিলেন। সেই মোতাবেক মাঠের একপাশে সীমানা প্রাচীর ও পশ্চিম দিকে নামাজ আদায়ের জন্য মিনারও রয়েছে। যেখানে একমাস আগে মৃত আমির উদ্দিনের চার ছেলে বাদল মিয়া, মানিক মিয়া, বাবুল মিয়া ও আবুল মিয়া জোরপূর্বক মাঠের দু’পাশে দুটি  টিনশেড ঘর নির্মাণ করে বসবাস করে করছেন। এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে। এ সময় মাঠের জায়গায় ঘর নির্মাণের বিষয়ে জানতে চাইলে বাদল মিয়া জানায়, এ জমি তার পিতার খরিদ করা যা তাদের নামীয় রেকর্ড রয়েছে। তার দাবি এলাকার কয়েকজন লোক জোর করে আমার পিতার খরিদ করা জায়গা ঈদগাহ মাঠ বলে দাবি করেন।

এ ব্যাপারে হোসেনপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাবেয়া পারভেজ জানান,  সিএস ও এসএ খতিয়ান মূলে এটা ঈদগাহ মাঠের নামেই রয়েছে । সে হিসেবে এটা রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি। কিন্তু ভুল করে এটা নতুন মাঠ পর্চা খতিয়ানে এক ব্যক্তির নামে রেকর্ডভুক্ত হয়ে গেছে। যার জন্য আমরা আদালতে মামলা দায়ের করেছি। রায়ের কপি হাতে পেলেই তা উদ্ধার করে ঈদগাহ মাঠের নামেই তা ফিরিয়ে দেওয়া হবে জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর