• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৬ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
নোটিশ :
* ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেশবাসীকে বীরযোদ্ধা অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে জানাই প্রাণ ঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা * বিভিন্ন বিভাগ, জেলা ও উপজেলাতে অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী  আবশ্যক। আগ্রহীদের নিম্নে ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে।

শ্রেণি কক্ষে পানি, ১০ বছরেও জলাবদ্ধতা নিরসনে নেই পদক্ষেপ

বীরযোদ্ধা / ২০০
প্রকাশিত : ৬:২৪ পিএম, (বৃহস্পতিবার) ১০ জুন ২০২১

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতনিধি :

ত্রিশাল উপজেলার বইলর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বইলর মঠবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১০ বছরের জলাবদ্ধতা নিরসনে নেই কোনো পদক্ষেপ এবং বৃষ্টির দিন আসলেই শ্রেণি কক্ষে পানি উঠে যায়।

প্রতি বছর বিভিন্ন জায়গায় আবেদন করা হলেও ফল মিলেনি কোনো। অনেকেই আশা দিয়েও কোন পদক্ষেপ নেয়নি বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। বিদ্যালয়ের মাঠে বছরে ৬ মাস পানি জমে থাকে এই জলাবদ্ধতায় শিক্ষার্থীরা ঠিকমতো ক্লাসে আসতে পারে না। শিক্ষক, শিক্ষার্থী, এলাকার মানুষজন বিগত কয়েক বছর ধরে এই ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।

স্থানীয় রনি নামে এক যুবক বলেন, বেশ কয়েক বছর ধরে এই স্কুলের মাঠে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। এর সমাধানে কেউ কখনো এগিয়ে আসে নি। আমরা এলাকাবাসী এই জলাবদ্ধতার নিরসন চাই।

স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাজিদ বলেন, স্কুল খোলা থাকলে বৃষ্টির সময় শ্রেণি কক্ষেও পানি উঠে। বেঞ্চের উপরে পা উঠিয়ে আমাদের ক্লাস করতে হয়। আমাদের স্কুলের মাঠটিতে পানি জমে থাকায় আমরা খেলাধুলা করতে পারিনা। স্কুলে আসা-যাওয়া করতে সমস্যা হয়। সে অভিযোগের সুরে আরও বলে অন্য কোন স্কুলে তো পানি জমে থাকে না, তাহলে আমাদের স্কুলটি এমন কেন!

ছাত্র অভিভাবক কাজী মারুফ বলেন, একটি স্কুলের খেলার মাঠের যদি এই অবস্থা হয়, তবে ওই স্কুলের স্থানীয় ছেলেমেয়েরা কোথায় খেলাধুলা করবে? এ বিষয়ে দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের স্বেচ্ছাচারিতাই প্রকাশ পেয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন দ্রুত এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেবে বলে আমরা আশাবাদী।

বইলর মঠবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাহমিনা আক্তার বলেন, আমি ১০ বছর ধরে এই স্কুলে আছি। সেই শুরু থেকেই এই জলাবদ্ধতা দেখে আসছি। এখন মহাসড়কের পানি গড়িয়ে স্কুল মাঠে আসায় এটা আরও বেড়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালী রহিম মাস্টার পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করে ফিসারী করে মাছ চাষ করায় এই সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের। এ বিষয়টি আমি আমার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

তবে পানির পথ বন্ধ করে ফিসারী করে মাছ চাষ করা রহিম মাস্টারের ছেলের সাথে ফোনে কথা হলে তিনি জানান, ১০ বছর যাবৎ আমাদের ফিসারীর কারণে বিদ্যালয়ে জলাবদ্ধতা এটা ঠিক না। এ সমস্যা সমাধানে আমাদের সাথে এলাকার মেম্বার ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের কথা হয়েছে।

এ বিষয়ে ত্রিশাল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নূর মোহাম্মদ জানান, এ বিষয়টি আমি অবগত হয়ে স্কুলটি পরিদর্শন করেছি। পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ থাকায় এ জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এ জলাবদ্ধতা নিরসনে আমি উপজেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলবো।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বিদ্যালয়ের মাঠে জলাবদ্ধতা খুবই দুঃখজনক বিষয়। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে দ্রুতই জলাবদ্ধতা নিরসনে স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর