• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১১:২১ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
নোটিশ :
* ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেশবাসীকে বীরযোদ্ধা অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে জানাই প্রাণ ঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা * বিভিন্ন বিভাগ, জেলা ও উপজেলাতে অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী  আবশ্যক। আগ্রহীদের নিম্নে ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে।

প্রেমের জেরে খুন হল স্কুল পড়ুয়া ছাত্র আকাশ

বীরযোদ্ধা / ৭৭
প্রকাশিত : ৮:৫১ পিএম, (রবিবার) ২৩ মে ২০২১

মোঃ ফারুক হোসেন, ময়মনসিংহ ব্যুরো :

অষ্টধার বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছাত্রী জেসমিনের সাথে ভিকটিম আকাশের প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে সকলের অজ্ঞাতসারে তারা বিয়ে করে বলে এলাকায় গুঞ্জন সৃষ্টি হলে মেয়ে পক্ষ ক্ষীপ্ত হয়। মেয়ের বাবা, চাচাসহ ভাইয়েরা গোপনে পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা মোতাবেক ১৯ মে রাতে কৌশলে মেয়েকে দিয়ে ভিকটিম আকাশকে ডেকে নিয়ে আসে। রাত অনুমান ১০টার দিকে পরিকল্পিতভাবে আসামীরা রাতের অন্ধকারে উপর্যুপুরি কুপিয়ে আকাশকে জবাইপূর্বক হত্যা করে। প্রথমে লাশ বাড়ীর রান্না ঘরের পাশে ময়লার গর্তে ফেলে রাখে। পরের দিন রাতে লাশ ময়লার গর্ত হতে উঠিয়ে বাড়ীর কিছুটা দূরবর্তী স্থানে রাখে। ভিকটিমের পিতা তার ছেলেকে খোঁজাখুজি করে কোথাও না পেয়ে থানায় নিখোঁজ ডায়েরী করে।

নিখোঁজ ডায়েরীর সূত্র ধরে কোতোয়ালী মডেল থানা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২১ মে সন্ধ্যায় ভিকটিমের মৃতদেহ প্রেমিকার বাড়ীর পাশ থেকে মাটির নীচ থেকে উদ্ধার করে। ইতোমধ্যে প্রেমিকার বাবা, ভাই, চাচা সকলেই বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ সাড়াশি অভিযান চালিয়ে দ্রুত সময়ে হত্যাকান্ডে জড়িত ০৬ জন আসামীকে মুক্তাগাছা থেকে ২২ মে আটক করে।

পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা হত্যার দায় স্বীকার করে এবং আসামীদের দেখানো মতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি ও কোদাল উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় কোতোয়ালী মডেল থানায় ২২ মে মামলা (নং-৯৪, ধারা-৩০২/২০১/৩৪) রুজু হয়। গ্রেফতারকৃত ৬ জন আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে।

তার মধ্যে আসামী জিয়াউল হক মেম্বার (৫২), জুলহাস উদ্দিন (৩৫), নাজমুল হক (২১) দেরকে ২৩ মে বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট জনাব মোঃ আব্দুল হাই ১নং আমলী বিচারিক আদালতে সোর্পদ করা হলে, হত্যাকান্ডের বর্ণনা দিয়ে বিজ্ঞ আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে।

অতি দ্রুততম সময়ে মামলার রহস্য উদঘাটিত হয়েছে। ঘটনায় জড়িত অভিযুক্তদের দ্রুততম সময়ে শাস্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২/১ কার্য দিবসেই মামলাটির অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে।

আসামীরা হলো- ময়মনসিংহ কোতোয়ালী থানার ভূগলী নয়াপাড়ার জিয়াউল হক মেম্বার (৫২), জুলহাস উদ্দিন (৩৫), নাজমুল  হক (২১), রোজিনা আক্তার (২৩), নার্গিস আক্তার (৩২) ও জেসমিন (১৬)।

নিহত সৈকত হাসান আকাশ (১৬) একই এলাকার আকরাম হোসেনের ছেলে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর