• সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩১ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
নোটিশ :
* ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেশবাসীকে বীরযোদ্ধা অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে জানাই প্রাণ ঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা * বিভিন্ন বিভাগ, জেলা ও উপজেলাতে অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী  আবশ্যক। আগ্রহীদের নিম্নে ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে।

পূবাইলে সরকারি রাস্তা খনন করে মাটি ও গাছ কেটে বিক্রি

বীরযোদ্ধা / ৩০
প্রকাশিত : ৭:৪৭ পিএম, (মঙ্গলবার) ২০ এপ্রিল ২০২১

রবিউল আলম, গাজীপুর :

গাজীপুর মহানগরীর পূবাইল মেট্রোপলিটন থানার বোরান মৌজার সরকারি হালটের রাস্তা খনন করে মাটি ও গাছ কেটে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় ইমন সিকদার স্বপন, এমরান ও তানজিল সিকদারসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্রের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠে। তারা শুক্রবার রাত থেকে মাটি ও গাছ কেটে বিক্রি করে দিয়েছে।

এ ঘটনায় আজ মঙ্গলবার পূবাইল ভূমি অফিসের সহকারী কর্মকর্তা জাবেদ সারোয়ার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে একটি প্রতিবেদন দিয়েছেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী ও বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী বলেন, ওই ভূমিদস্যুতায় লিপ্ত চক্রটি প্রায় ১০লাখ টাকার রাস্তা খনন করে গাছপালা কেটে নেওয়ায় আমরা কৃষি জমিতে যেতে পারছি না। এমন জঘন্য কাজের সাথে যারা যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে। চক্রটি গাছ কাটার সময় বিক্ষুব্ধ জনতা বাধা দিলে প্রতিপক্ষের ইট পাটকেলের আঘাতে ৭ বছরের শিশু হাবিবের চোখে মারাত্মক আঘাতসহ আহত হন আরও ৪জন।

সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, পূবাইলের বোরান মৌজার আরএস ১৮১ দাগের সরকারি হালটের ১ একর ৬ শতক রাস্তার মাটি খনন করে বিক্রি করে দিয়েছে চক্রটি। এ কারণে প্রায় ৫ হাজার কৃষক পরিবার তাদের কয়েক’শ বিঘা জমির বোরো ধান ঘরে তুলতে পারবেনা। তবে তারা ফসল ঘরে তুললেও কঠিন বিড়ম্বনায় পড়বেন।

স্থানীয় ৪২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুস ছালাম জানান, বহু পুরানো এ সরকারি হালটের রাস্তা দিয়ে ওই এলাকার কৃষক পরিবারগুলো তাদের নিত্য দিনের কাজ করেন। কিন্ত একটি ভূমিদস্যু সিন্ডিকেট গাছপালাসহ মাটি খনন করে খাওয়া শুরু করল। আমি বাধা দিলেও আমার কথা শুনছেনা। প্রায় ১০ লাখ টাকার মাটি ও গাছ কেটে বিক্রি করে দিয়েছে ওই চক্রটি। তাদের খুঁটির জোর কোথায়?

গাজীপুর সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানিয়া তাবাসসুম জানান, সরকারি হালটের মাটি খনন করে গাছপালা কেটে নেওয়ার বিষয়ে জানতে পেরেছি। আমার মনে হয়েছে এটা একটি সংঘবদ্ধ চক্রের কাজ। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোনো অপরাধীরাই ছাড় পাবেনা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর