• সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
নোটিশ :
* ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেশবাসীকে বীরযোদ্ধা অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে জানাই প্রাণ ঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা * বিভিন্ন বিভাগ, জেলা ও উপজেলাতে অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী  আবশ্যক। আগ্রহীদের নিম্নে ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে।

দুই সন্তান রেখে প্রেমিকের হাত ধরে ঘর ছেড়েছে প্রবাসির স্ত্রী

বীরযোদ্ধা / ২০
প্রকাশিত : ১২:০১ পিএম, (মঙ্গলবার) ২০ এপ্রিল ২০২১

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :

দুই সন্তানকে রেখে পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে টাকা পয়সা নিয়ে ঘর ছেড়েছেন হাসিনা আক্তার নামে এক প্রবাসীর স্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে ভালুকা উপজেলার ১নং উথুরা ইউনিয়নের চামিয়াদী গ্রামে। এ ঘটনায় শশুর বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগে ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২০০৪ সালে চামিয়াদী গ্রামের মজিবর রহমানের মেয়ে হাসিনা আক্তারের সাথে একই গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর আলমের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের এক বছর পর জীবিকা নির্বাহের জন্য দুবাই প্রবাসে চলে যান জাহাঙ্গীর। প্রবাস থেকে ছুটিতে আসা যাওয়ার মধ্যে তাদের সংসারে একটি কন্যা সন্তান জন্ম গ্রহণ করে এবং জাহাঙ্গীর প্রবাসে থাকাকালে পিতার সাথে আলাদা হয়ে পৃথকভাবে বাড়িঘর নির্মাণ করে বসবাস শুরু করে।

প্রবাসে আয়ের সিংহ ভাগ টাকা তাহার স্ত্রী হাসিনা আক্তারের কাছে পাঠাতেন জাহাঙ্গীর। প্রায়ই দেড় বছর পূর্বে দেশে এসে চার মাস অবস্থান করেন জাহাঙ্গীর ওই সময়ের মধ্যে তার স্ত্রী হাসিনা আক্তারের গর্ভে পুত্র সন্তান রেখে আবারো প্রবাসে চলে যান। জাহাঙ্গীরের স্বজনরা অবগত হয় যে বিভিন্ন লোকের সাথে জাহাঙ্গীরের স্ত্রী হাসিন আক্তারের অবৈধ মেলামেশা করিয়া অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলছে।
এ সব ঘটনায় তাকে বাধা নিষেধ দিলে হাসিনা ময়মনসিংহের বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা (১৩৪) করে।
২০২০ সালে মামলাটি বিজ্ঞ আদালত পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেন।
হাসিনা ও একই গ্রামের আবু হানিফের ছেলে আকবর আলীর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় জাহাঙ্গীরের বসত করে পরকীয়া প্রেম দেখে ফেলেন মোতালেব। তাদের কুকর্ম ধামা চাপা দেওয়ার জন্য।
২০২০ সালে ৩০ অক্টাবর হাসিনার কন্যা দ্বারা মোতালেবকে নিজগ্রহে ডেকে এনে ও তার প্রেমিক আকবর লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মোতালেবের দুই পা পঙ্গু করে দেন, বর্তমানে মোতালেব পঙ্গু অবস্থায় জীবন যাপন করছেন, জাহাঙ্গীর আলমের ৭ মাসের পুত্রসন্তান ও ৮ বছরে কন্যা সন্তান হাসিনার বাবা-মার কাছে রেখে হাসিনা তার পরকীয়া প্রেমিক আকবরের বাড়ীতে বসবাস করেছে।
জাহাঙ্গীরের পিতা ইদ্রিস আলী বলেন, আমার পুত্রকে তালাক বা তালাকের নোটিশ না দিয়েই জাহাঙ্গীরের প্রবাস থেকে পাঠানো ২৫ লক্ষ টাকা ৭ ভরি স্বর্ণালংকার জাহাঙ্গীরের পাঠানো দামি মোবাইল ফোন ও চামিয়াদী মৌজায় জাহাঙ্গীরের ক্রয়কৃত জমির কাগজপত্র এবং কাপড়-চোপড় নিয়ে আকবর আলীর বাড়ীতে অবৈধভাবে বসবাস করছে।

এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালের ২০ সেপ্টেম্বর আদালতের মাধ্যমে এফিডেফিট করিয়া জাহাঙ্গীর কে ডিভোর্স দেয় হাসিনা এবং নিজ গৃহে থাকা অন্য একটি এফিডেভিট থেকে জানা যায় চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারী আবারও জাহাঙ্গীর আলমকে ডিভোর্স দেন হাসিনা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, আমাকে সাক্ষী রেখে ১৫ থেকে ২০ দিন পূর্বে আকবর আলীকে ডিভোর্স দেন হাসিনা। এলাকায় হাসিনার কুকীর্তির কারণে ২০২০ সালে এলাকাবাসী মানববন্ধন করেছেন বলে জানা গেছে। এলাকাবাসী এ ঘটনায় জড়িত থাকা হাসিনা ও আকবর আলীকে তাদের বিবাহের কাবিন দেখাতে বললেও তারা দেখাবেনা বলে জানায়।

জাহাঙ্গীর প্রবাসে থাকায় এ ঘটনায় তার পিতা ইদ্রিস আলী বাদী হয়ে সম্প্রতি ভালুকা মডেল থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর