• রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫০ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
নোটিশ :
* ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেশবাসীকে বীরযোদ্ধা অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে জানাই প্রাণ ঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা * বিভিন্ন বিভাগ, জেলা ও উপজেলাতে অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী  আবশ্যক। আগ্রহীদের নিম্নে ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে।

ত্রিশালে তালের শাঁসের জমজমাট ব্যবসা

বীরযোদ্ধা / ৪৭
প্রকাশিত : ৭:৫১ পিএম, (বুধবার) ২ জুন ২০২১

আবু রাইহান :

ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের প্রতিটি এলাকায় ঠিক এক পায়ে দাঁড়িয়ে আছে অনেক তাল গাছ। সেগুলোতে ঝুলছে কচি তাল। এ ফলকে অনেকেই বলেন তালের শাঁস, আবার কেউ বলেন তালের আঁটি।

বৈশ্বিক করোনা প্রার্দুভাব থামিয়ে রাখতে পারেনি মৌসুমী ফলের বাজার। ত্রিশাল উপজেলার হাট-বাজারে উঠেছে কচি তাল। তালের ব্যবসা এখন জমজমাট। ফুটপাতে বিক্রেতারা তাল বিক্রিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। গরমে তৃষ্ণা নিবারণে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এ তালের শাঁস।

ত্রিশাল পৌর বাজারসহ উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে ঘুরে দেখা গেছে, কচি কচি তাল সংগ্রহ করে ফুটপাতের দোকান সাজিয়ে বসেছে দোকানিরা। তালশাঁসের বেশ চাহিদা থাকায় লাইন ধরেছে ক্রেতারা। চাহিদা মাফিক সময়মতো শাঁস কেটে সারতে পারছেন না বিক্রেতারা। প্রতি পিস তালের শাঁস বিক্রি হচ্ছে ৫ টাকায়। সে হিসেবে একটি আস্ত কচি তাল ১৫-২০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

বিক্রেতা বাবুল মিয়া বীরযোদ্ধাকে বলেন, আমি বেকার ছিলাম, করোনাকালে পরিবারের আর্থিক সংকট দেখা দেওয়ায় তালের শাঁস বিক্রি করছি। চাহিদা থাকায় এতে বেশ লাভবান হচ্ছি। সংসার ভালভাবেই চলে যাচ্ছে।

বর্তমানে শহর থেকে শুরু করে গ্রামের বিভিন্ন অলিগলিতে তালের শাঁস বিক্রি করছে। গরমের মধ্যে তৈলাক্ত খাবারের চেয়ে তালের শাঁস অনেক উপকারী।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নজরুল ইসলাম বীরযোদ্ধাকে বলেন, তালের শাঁস বিভিন্ন রোগ থেকে দূরে রাখে এবং রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বৃদ্ধি করে। করোনাকালীন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য মৌসুমী ও সাইট্রাস জাতীয় ফল বেশি করে খাওয়ার পরামর্শ দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর