• বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
নোটিশ :
* ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেশবাসীকে বীরযোদ্ধা অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে জানাই প্রাণ ঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা * বিভিন্ন বিভাগ, জেলা ও উপজেলাতে অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী  আবশ্যক। আগ্রহীদের নিম্নে ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে।

কোম্পানীগঞ্জে উপজেলা আ’লীগ সভাপতির ওপর হামলার অভিযোগ

বীরযোদ্ধা / ৭৩
প্রকাশিত : ৩:০৮ পিএম, (সোমবার) ৮ মার্চ ২০২১

নোয়াখালী সংবাদদাতা

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত হয়েছেন।

সোমবার (৮ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টায় খিজির হায়াত খান বসুরহাট রূপালী চত্বরে এলে দুর্বৃত্তরা তার ওপর হামলা চালায় বলে তিনি অভিযোগ তোলেন। এতে তিনি আহত হন। এ সময় তার সঙ্গে থাকা সেতুমন্ত্রীর ভাগ্নে ফখরুল ইসলাম রাহাত, মুছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম শাহীন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সদস্য অধ্যক্ষ আব্দুল্লাহ আল মামুন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জায়দল হক কচি পালিয়ে যান। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান বলেন, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা তিন দিন আগে আমাদের পার্টি অফিসের মালপত্র লুটপাট করে নিয়ে যান এবং অফিসে তালা লাগিয়ে দেন। পরে আমরা পাশের একটি ঘর ভাড়া নিই দলীয় অফিসের জন্য। আমি নতুন অফিস সংস্কারের জন্য মিস্ত্রি নিয়ে গেলে আবদুল কাদের মির্জার নেতৃত্বে শতাধিক লোক আমার কাজে বাধা দেয়।

তিনি আরও বলেন- এ সময় কাদের মির্জা বলেন এখানে কিসের অফিস? পরে তিনি আমাকে কিল, ঘুষি, লাথি মেরে মারাত্মক আহত করেন। আমি এখন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছি।

এ ব্যাপারে সাংবাদিকরা বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে বার বার ফোন করা হলেও রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে জানতে সাংবাদিকরা কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি জাহিদুল হক রনিকে বার বার মোবাইলে কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি। পরে ওসি (তদন্ত) রবিউল হকের কাছে জানতে চাইলে, তিনি এ ঘটনায় কোনো মন্তব্য করবেন না বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর